এএসআই শাহজামালের মৃত্যুতে সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের শোক


 

আশাশুনি থানার এএসআই (নিঃ)/২১৬ মোঃ শাহজামাল সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হওয়ায় সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে গভীর শোক জানানো হয়েছে।

বৃহম্পতিবার সকালে সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে শোক জানিয়ে শোক বার্তা জারি করেছেন সাতক্ষীরা জেলা সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম(বার)।শোক বার্তায় পুলিশ সুপার তার বিদেয়ী আত্মার শান্তি কামনা করেছেন পাসাপাশি তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

এদিকে এএসআই শাহজামালের মর্মান্তিক মৃত্যুতে সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম (বার) তাঁর অফিসিয়াল ফেইজবুক আইডিতে এক আবেগঘন স্টাটাস দিয়েছেন। পুলিশ সুপারের সেই আবেগঘন স্টাটাসটি হুবাহু তুলে ধরা হলো…

কেউ কি এক রাত নির্ঘুম কাটিয়ে দেখেছেন পরের দিন অথবা তারপরের দিন কতটা সময় লাগে আপনার এক রাতের ঘুম কভার করতে। এভাবেই প্রতিটি রাত অসংখ্য পুলিশ সদস্য জেগে থেকে আপনাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে। জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সারারাতের আরামের ঘুম নষ্ট করে যখন ক্লান্ত দেহে ভোর বেলায় একটু বিশ্রাম নেওয়ার প্রত্যাশায় কর্মস্থল থেকে ফিরছিলেন তখনই নিষ্ঠুর নিয়তি তাকে ফেরত দেয়নি। অকালে ঝরে গেল একটি তাজা প্রাণ। 1971 সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে জাতির প্রতিটি ক্রান্তিলগ্নে দেশপ্রেমে পুলিশ বাহিনীর সদস্য গন জাতির পাশে দাঁড়িয়েছে। অথচ আমরা কত সহজে তাদের ত্যাগ, কষ্ট পরিশ্রম ভুলে যাই, ভুলে যাই তাদের অবদানের কথা, ভুলে যাই তাদের পরিবার-পরিজনের কথা। অকৃতজ্ঞতা যে কোন জাতির জন্যই খারাপ পরিণতি ডেকে আনে। আসুন সবাই মিলে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাই। ক্ষুদ্র স্বার্থে বৃহৎ অর্জনকে অস্বীকার না করি।

আশাশুনি থানার এএসআই (নিঃ)/২১৬ মোঃ শাহজামাল (বিপি-৮৬০৫০৮১২৮৬) সঙ্গীয় কং/৬৮৩ মোঃ নাজমুছ ছাদাত সহ বুধহাটা বাজার ও আশপাশ এলাকায় রাত্রীকালীন টহল ডিউটির উদ্দেশ্যে মোটর সাইকেল যোগে ডিউটি করা কালীন ইং-১০/৯/২০২০ তারিখ ভোর অনুমান ০৪.৪০ ঘটিকার সময় চাঁপড়া ব্রীজের উত্তর পাশে রাস্তার উপর অবৈধভাবে দাড়িয়ে থাকা অতিরিক্ত বাঁশ বোঝাই ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-২৪-২২৪৪) এর পিছনের ঝুলন্ত বাঁশের আগায় লাগিয়া বুকের ডান পাশের্ বাঁশের আগা ঢুকিয়া মারাত্মক জখম প্রাপ্ত হয় এবং ফুসফুস ছিদ্র হইয়া শ্বাস-প্রশ্বাস বাধাগ্রস্ত হইতে থাকে। বাম হাতেও মারাত্মক জখম প্রাপ্ত হয়। তাহাকে আশাশুনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হইতে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে অক্সিজেন দিয়া দ্রুত এ্যাম্বুলেন্স যোগে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত ডাক্তার ০৭.১৫ ঘটিকায় তাহাকে মৃত ঘোষনা করেন।

তাহার সাথে থাকা কং/৬৮৩ মোঃ নাজমুছ ছাদাত বাম হাতে জখম প্রাপ্ত হওয়ায় তাহাকে প্রাথমিক ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হইয়াছে। উক্ত ট্রাকের ড্রাইভার থানা হেফাজতে আছে। এএসআই (নিঃ)/২১৬ মোঃ শাহজামাল আহত হওয়ার বিষয়টি তাহার পরিবারকে অবহিত করা হইয়াছে।তার স্ত্রী দীর্ঘদিন পর বর্তমানে সন্তান সম্ভবা হইয়াছে!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page