খুলনায় চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণের ঘটনায় র‍্যাব-৬ এর অভিযানে মূলহোতা সহ আটক-০৪

দ্বারা Updates Stkhira
০ মন্তব্য 81 দর্শন

 

খুলনায় চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণের ঘটনায় র‍্যাব-৬ এর অভিযানে মূলহোতাসহ ৪ জন গ্রেফতার।হয়েছে।র‍্যাব-৬ এর  অধিনায়ক  লে.কর্ণেল মুহাম্মদ মোসতাক আহমেদ বৃহম্পতিবার  তাঁর  কার্যালয়ে এক প্রেস বিফিংয়ের মাধ্যমে সাংবাদিক দের জানান,

গত   ১৩ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখ বিকালে খুলনা মহানগরীর আড়ংঘাটা বাজার এলাকায় ভিকটিম স্বামীসহ ঘুরতে যায়। একই দিন সন্ধ্যায় ঘোরাফেরা শেষে ভিকটিম ও তার স্বামী বাইপাস মোড় থেকে আড়ংঘাটা বাজার যাওয়ার সময় ৪ জন ব্যক্তি নিজেদের পুলিশ পরিচয় দিয়ে তাদের থামায়। তখন আসামীরা ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ভিকটিমের স্বামীকে একটি স্থানে আটকে রাখে এবং ভিকটিমকে একটি বাসার ছাদে নিয়ে একই তারিখ রাত অনুমান ২০.৩০ ঘটিকা হতে ২৩.০০ ঘটিকা পর্যন্ত দলবদ্ধভাবে পর্যায়ক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষনের সময় আসামীরা মোবাইল ফোনে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে এবং ধর্ষণের ঘটনাটি কোথাও জানালে ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। পরবর্তীতে গভীর রাতে আসামীরা ভিকটিমকে রাস্তার উপর ছেড়ে দেয়। ভিকটিম বিষয়টি তার স্বামীকে জানায়। ভিকটিমকে অসুস্থ অবস্থায় ঐদিন রাতেই খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওসিসিতে ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে ভিকটিম বাদী হয়ে কেএমপি খুলনার আড়ংঘাটা থানায় একটি গণধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। বিষয়টি বিভিন্ন মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে প্রচারিত হয় এবং জনমনে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করে। ঘটনার পর থেকে র‌্যাব-৬ (স্পেশাল কোম্পানি) এর একটি আভিযানিক দল আসামীদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে গোয়েন্দা তৎপরতা শুরু করে এবং অভিযান অব্যাহত রাখে।

র‍্যাব-৬ এর  অধিনায়ক  লে.কর্ণেল মুহাম্মদ মোসতাক আহমেদ জানান, তারই  ধারাবাহিকতায় র‍্যাব-৬, (স্পেশাল কোম্পানি) এর একটি আভিযানিক দল গণধর্ষণের সাথে জড়িত আসামীদের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট গোয়েন্দা তথ্য প্রাপ্তির পর ১৫ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখ রাত অনুমানিক ০০.৩০ ঘটিকা হতে ০৩.০০ ঘটিকা পর্যন্ত খুলনা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে উক্ত চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলার আসামী ১। বেলাল মোড়ল(৪৬), থানা-আড়ংঘাটা, ২। আজিজুর রহমান মিঠু(৪০), থানা-দৌলদপুর, ৩। জিহাদ মুন্সি(২৪), থানা-দিঘলিয়া, ৪। রাসেল(২২) থানা-আড়ংঘাটা সর্ব জেলা-খুলনাদেরকে গ্রেপ্তার করে । এসময় আসামীদের নিকট হতে একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। উক্ত মোবাইলে ধর্ষণের ঘটনার সময় ধারণকৃত ভিকটিমের সংবেদনশীল ভিডিও পাওয়া যায়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা উক্ত ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে।

প্রেস বিফিংয়ে তিনি আরো জানান,গ্রেফতারকৃত আসামীদের কেএমপি খুলনার আড়ংঘাটা থানায় হস্তান্তরের কাজ প্রক্রিয়াধীন।

০ মন্তব্য

আরও পোস্ট পড়ুন

মতামত দিন