খুলনায় বর্ণাঢ্য আয়োজন স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী:স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ উদযাপন


 

বর্ণাঢ্য আয়োজন ও বিপুল উৎসাহে খুলনায় ‘স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ’ উদযাপনের দুই দিনব্যাপী কর্মসূচির উদ্বোধন আজ (শনিবার) সকালে শিববাড়ি মোড়ে অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষ্যে খুলনার শিববাড়ি মোড় থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সার্কিট হাউজ মাঠে মূল অনুষ্ঠান মঞ্চে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রা ও মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় সবাইকে শামিল হওয়ার আহবান জানিয়ে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিটি মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দ্বারাই দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উন্নয়ন হয়েছে। রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র, খুলনা-মোংলা রেলপথ, রূপসা ব্রিজ, খানজাহান আলী বিমানবন্দর নির্মাণসহ সকল উন্নয়ন শেখ হাসিনার হাতেই হয়েছে। দেশের উন্নয়নে অনেক মেগাপ্রকল্প চলমান রয়েছে। দেশের মানুষের গড়আয়ু বৃদ্ধি পেয়েছে এবং মাতৃমৃত্যু ও শিশুমৃত্যুর হার কমেছে। বাংলাদেশের বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা এখন ২৪ হাজার মেগাওয়াট ছাড়িয়েছে।

তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার পরে বঙ্গবন্ধু দেশের ভূমি ব্যবস্থাপনায় পরিবর্তন এনে ২৫ বিঘা পর্যন্ত জমির খাজনা মওকুফ করেন। যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশে বঙ্গবন্ধুর সাহসী নেতৃত্বে ভারী মিল-কারখানা, ব্যাংক ও বীমাখাত জাতীয়করণ করা হয়। বঙ্গবন্ধু তাঁর রাজনৈতিক জীবনে বহুবছর কারাগারে থেকেছেন ও দুই বার ফাঁসির মঞ্চে গিয়েছেন। এসবের পরেও তিনি আদর্শ থেকে সরে যাননি। তিনি অন্যায়ে কাছে নতি স্বীকার করলে আমরা স্বাধীন দেশ পেতাম না। তাঁরই কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্বাধীনতার ৫০ বছরে আমরা মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছি।

খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মোঃ মাসুদুর রহমান ভূঞা, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) সৈয়দ রবিউল আলম ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সরদার রকিবুল ইসলাম, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান, খুলনা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আব্দুল্লাহ্, সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোঃ সাইফুল ইসলাম ও বীর মুক্তিযোদ্ধ মোঃ আলমগীর কবির। স্বাগত জানান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ সাদিকুর রহমান খান।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ’ উদযাপন উপলক্ষ্যে খুলনা সার্কিট হাউজ মাঠে একশত ২৭ টি স্টলে সরকারি-বেসরকারি দপ্তর তাদের উন্নয়ন কর্মকান্ড ও অগ্রগতি প্রদর্শন করে। এ প্রদর্শনী আগামীকালও চলবে। আজকের কর্মসূচির উল্লেখযোগ্য অংশ হলো উন্নয়ন বিষয়ক ভিডিও প্রদর্শন, তরুণদের জন্য জাতির পিতার জীবনীর ওপর নির্মিত তথ্যচিত্র ও স্থানীয় বিভিন্ন উন্নয়ন তথ্যসমৃদ্ধ ভিডিও প্রদর্শনী এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

আগামীকাল ২৮ মার্চের কর্মসূচির হলো: সকাল ১০টায় ‘রূপকল্প ২০৪১: উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ’ বিষয়ক সেমিনার, দুপুর ১২টায় শিক্ষার্থী ও তরুণদের জন্য উন্নয়ন বিষয়ক কুইজ ও উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা, বেলা আড়াইটায় স্থানীয় বিভিন্ন উন্নয়নচিত্র প্রদর্শনী, বিকেল চারটায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং পাঁচটায় সমাপনী অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You cannot copy content of this page