জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি আগের তুলনায় অনেক ভালো: খুলনার এসপি মাহাবুব হাসান

দ্বারা Updates Stkhira
০ মন্তব্য 68 দর্শন

 

খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির জুন মাসের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১২ জুন) দুপুরে জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদারের সভাপতিত্বে তার সম্মেলনকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

খুলনা জেলার রূপসা, তেরোখাদা, বটিয়াঘাটা উপজেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনায় সভায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করা হয়।

সভায় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান বলেন, জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি আগের তুলনায় অনেক ভালো।

তিনি মাদক ও অপমৃত্যু প্রতিরোধে সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানান।
সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহমেদ বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে টিকাদান কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

বর্তমানে ১৮ বছর বা তদুর্ধ্ব বয়সের মানুষের জন্য বুস্টার ডোজ দেওয়ার কার্যক্রম চলছে।
তিনি বলেন, দেশে করোনা পরিস্থিতি আগের চেয়ে অনেক ভালো। খুলনা মহানগরে এ পর্যন্ত ৩৪ লাখ ৭২ হাজার ৭২৫ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। খুলনা জেলায় এখন পর্যন্ত ১৫ শতাংশ মানুষকে বুস্টার ডোজ ও ৭৩ শতাংশ মানুষকে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে।

কয়রা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম শফিকুল ইসলাম বলেন, সুন্দরবনে মাছ আহরণ সরকারিভাবে তিন মাস বন্ধ ঘোষণা সত্ত্বেও রাতের বেলায় সুন্দরবনে চিংড়িসহ বিভিন্ন মাছ ধরা অব্যাহত আছে। বন বিভাগের মাধ্যমে এ বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে তিনি সভাপতির দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, বাল্যবিয়ে, নারী ও শিশু নির্যাতন এবং ধর্ষণের মতো অপরাধ যাতে না ঘটতে পারে সে বিষয়ে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। নগরের ডাকবাংলা ও এর আশপাশের এলাকায় রাস্তার ওপর ভ্রাম্যমাণ বাজার এবং নির্মাণসামগ্রী অবৈধভাবে থাকার কারণে রাস্তা সংকুচিত হয়ে যান চলাচলে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। তিনি কেএমপিকে এ ব্যাপারে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানান।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট পুলক কুমার মণ্ডল সভায় বিগত মাসে খুলনা জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলে ধরেন। এ সময় জানানো হয় খুলনা জেলা অধিক্ষেত্রে বিগত মে মাসে ১৭০টি মামলা দায়ের করা হয়েছে, যা বিগত এপ্রিল মাসে দায়ের হওয়া মামলা থেকে তিনটি কম। খুলনা মহানগর অধিক্ষেত্রে মে মাসে ১৩১টি মামলা দায়ের করা হয়েছে, যা বিগত এপ্রিল মাসে দায়ের হওয়া মামলা হতে একটি কম।

সভায় জেলা পরিষদের প্রশাসক শেখ হারুনুর রশীদ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন

০ মন্তব্য

আরও পোস্ট পড়ুন

মতামত দিন