যেভাবে করোনা কে জয় করলেন ডিআইজি শেখ নাজমুল আলম


 

আলহামদুলিল্লাহ্। আজ সস্ত্রীক আমার Covid-19 পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ হলো।
গত ৮ জুলাই শরীরে জ্বরের উপসর্গ দেখা দেয়ায় ১৩ জুলাই চিকিৎসকের পরামর্শে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা দিলে ফলাফল পজিটিভ আসে।
এরপর রোগভোগের একটা নির্দিষ্ট সময় পার করতে হয়েছে। অসংখ্য মানুষ ভালবেসে তাদের প্রার্থনায় আমাকে রেখেছেন, আমি সকলের কাছে কৃতজ্ঞ। আল্লাহ্ তায়ালা সবাইকে উত্তম প্রতিদান দিন।

এখনও অবধি Covid-19 এর জন্য কোনো নির্দিষ্ট ভ্যাকসিন বা ওষুধ আবিষ্কৃত হয়নি। তাই এর চিকিৎসা দেয়া হয় পুরোটাই লক্ষনের উপর ভিত্তি করে ।

তথ্য বলছে, Covid এর
৮০% রোগী হোম আইসোলেশন থেকে সুস্থ হওয়া সম্ভব। এদের মধ্যে রয়েছে asymptomatic (CDC র মতে ৪০%) এবং mild symptomatic রোগী।
বাকি ১৫% symptomatic রোগীর oxygen প্রয়োজন হয়, এবং ৫% critical, যাদের ventilator এর প্রয়োজন পড়ে ।
আক্রান্ত হওয়ার পর রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের চিকিৎসকদের পরামর্শ , ব্যবস্থাপত্র ও দিক নির্দেশনা মেনে পুরোটা সময় আমি হোম আইসোলেশনে ছিলাম।
যেহেতু signs/ symptoms থেকে Covid বোঝার উপায় নেই, তাই এসময় যাদের জ্বর- সর্দি- গলা ব্যথা হচ্ছে, তারা প্রথমেই নিজেকে isolate করুন, নিজের ব্যবহারের জিনিস আলাদা করুন । আগেই Corona test এর জন্য ব্যাকুল হবেন না । কারণ ,
Test করতে গিয়ে হাসপাতালে দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে নিজে exposed হতে পারেন অন্য +ve এর কাছে ।
অথবা, আপনি সত্যি +ve হলে অন্যদের expose করে দেবেন ।
তাই ,ধীরে সুস্থে নিজের Symptoms দেখে চিকিৎসকের পরামর্শ মতো করোনা টেস্ট করুন ।

Home Isolation এ কী কী করণীয়:
– প্রথমেই নিজেকে পরিবারের বাকিদের থেকে আলাদা করুন ।
– বিশেষ করে বয়স্ক ও বাচ্চাদের কে দুরে রেখে নিজের জন্য আলাদা ঘর বেছে নিন ।
– নিজের ব্যবহারের সব জিনিস আলাদা করুন ।
– অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে । একটানা ৮ ঘণ্টা পর, disinfect করে, মাস্কটিকে কেটে/ ছিড়ে Paper bag এ জমিয়ে ফেলে দেবেন ।
-পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করবেন , Hydrated থাকাটা জরুরী ।
– পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিন।
– নিজের প্রতিদিনের Symptoms Note করুন । প্রয়োজনের সময় ব্যবহারের জন্য পালস অক্সিমিটার এবং থার্মোমিটার কাছে রাখুন।
– যেখানে বেশি হাত পড়ছে,সেই জায়গাগুলো নিজের হাতে disinfect করুন ।( with 1% hypochlorite solution)
– নিজের মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি খেয়াল রাখুন । ভয় পাবেন না । প্রার্থনা করুন, ভালো বই পড়ুন, movie দেখুন, বন্ধুদের সাথে কথা/ video call করুন ।
–নিয়মিত সুষম খাবার, বিশেষ করে ভিটামিন সি, জিংক, উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার আপনার খাদ্য তালিকায় রাখুন।
– আপনার ডাক্তারের সাথে প্রয়োজনে কথা বলুন ।
– নিজেকে সুস্থ মনে হলেও ১৪ দিন এগুলো অবশ্যই মেনে চলুন।

কখন যাবেন হাসপাতালে ?
হাল্কা জ্বরটা বেড়ে গেছে, বাকী লক্ষণগুলো কমেনি বরং বেড়েছে, বুকে চাপ অনুভব করছেন , শ্বাস কষ্ট অনুভব করছেন , Mental confusion , প্রচন্ড ক্লান্ত/ দুর্বল লাগছে ।
( এছাড়া Asymptomatic +ve, কিন্তু Age > 60yrs,
Asymptomatic +ve, with co-morbid condions, যেমন- High blood pressure, Diabetes, Heart patients, kidney patients, Immunosuppresed , Cancer patient etc )

যাদেরকে প্রতিদিন দায়িত্ব পালনের জন্য বাইরে যেতে হয় তারা পারলে এখন থেকেই ঠিক করে রাখুন Isolation এর ঘর
— আলাদা করে রাখুন নিজের সারাদিনের ব্যবহার এর জিনিসগুলো
— Emmergency contacts- Doctor, Ambulance, Hospital help line number, কাছের বন্ধু ।
— পর্যাপ্ত Sanitising/ disinfecting materials ঘরে রাখুন ।

এটি পৃথিবীর প্রথম মহামারী (Pandemic) নয় । বিজ্ঞান বলছে, অন্যান্য মহামারীর মতো করোনাও পৃথিবী থেকে বিদায় নেবে একদিন।
তাই হতাশা নয়, সৃষ্টিকর্তার উপর বিশ্বাস রাখুন।
ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, সচেতন থাকুন । নিয়ম মেনে চলুন।

লেখক : শেখ নাজমুল আলম,  অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ক্রাইম ওয়েস্টের উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক (ডিআইজি),বাংলাদেশ পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *