লালমনিরহাটে পুলিশ জাদুঘর উদ্বোধন করলেন আইজিপি

দ্বারা Updates Stkhira
০ মন্তব্য 42 দর্শন

 

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, পুলিশ বানভাসি মানুষের পাশে ছিলো, আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

তিনি বলেন, মাত্র ১২ ঘণ্টার মধ্যে সিলেট-সুনামগঞ্জসহ দেশের অনেক জেলায় লাখ লাখ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পানিবন্দি মানুষের পাশে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। এই দুর্যোগ মোকাবিলা করতে পুলিশ বানভাসি মানুষদের পাশে ছিল, আছে এবং থাকবে।

বুধবার (২২ জুন) লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

দেশের প্রথম বাংলাদেশ পুলিশ জাদুঘরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইজিপি বলেন, পৃথিবীতে অনেক দেশ আছে যাদের গর্ব করার মতো কিছুই নেই, বাংলাদেশে গর্ব করার মতো অনেক কিছু রয়েছে। আমরা বলতে পারি পদ্মা সেতু আমাদের সাহসিকতার একটি উদাহরণ। পৃথিবীর দ্বিতীয় খরস্রোতা নদী পদ্মার ওপর সেতু করা কাল্পনিক বিষয় ছিল, যা প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে বাস্তবায়ন হয়েছে। পদ্মা সেতু বিশ্বে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে।

তিনি বলেন, আমরা বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ ও পতাকা পেয়েছি। স্বাধীনতার ৫০ বছর পর ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত দেশ পেয়েছি। করোনা না এলে এতদিনে ক্ষুধাকে জাদুঘরে রেখে দেওয়া হতো। স্বাধীনতা-পরবর্তী বাংলাদেশকে দেখেছি, চৈত্র মাসে ভাত খাওয়ার কথা চিন্তাই করা যেত না। কচু-শাক খেয়ে দিন কাটাত মানুষ। সেই বাংলাদেশ এখন আর নেই। আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ, যা আজ বাস্তবায়ন হয়েছে।

এর আগে পুলিশ প্রধান বাংলাদেশ পুলিশ জাদুঘরের ফলক উন্মোচন করেন। পরে বাংলাদেশ পুলিশ জাদুঘর ও পুলিশ শিশুগ্যালারী পরিদর্শন করে হাতীবান্ধা থানা ভবনে গাছের একটি চারা রোপণ করেন। এ সময় তিনি পুলিশ নারী ব্যারাক ও পুলিশ লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের উদ্বোধন করেন। পরে দহগ্রাম-আঙ্গরপোতা পরিদর্শন শেষে পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বিশেষ বৈঠক করে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেন তিনি।

লালমনিরহাট পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য, রংপুর বিভাগের ৮ জেলার পুলিশ সুপারসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

০ মন্তব্য

আরও পোস্ট পড়ুন

মতামত দিন