স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বিসিএস অফিসার্স ফোরামের জমকালো অনুষ্ঠান

দ্বারা zime
০ মন্তব্য 73 দর্শন

 

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বিসিএস অফিসার্স ফোরাম ( JUBOF) গতকাল ২৬ নভেম্বর ২০২১ (শুক্রবার) বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও আমাদের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে একটি বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

রাজধানীর কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটে বিকেল ৩:০০ টায় শুরু হওয়া এ আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এ কে এম এনামুল হক শামীম, এমপি, উপমন্ত্রী, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়।


অনুষ্ঠান শুরুর পূর্বেই ভেন্যু প্রাঙ্গণ জুবফ সদস্যদের প্রাণের মেলায় পরিণত হয়। বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বিসিএস)পরীক্ষার মাধ্যমে বিভিন্ন ক্যাডার সার্ভিসে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি)- এর যে গ্র্যাজুয়েটগণ যোগ দিয়েছেন তাঁদের পেশাজীবী সংগঠন জুবফ। ভেন্যু প্রাঙ্গণে স্থাপিত বিভিন্ন স্টলে জুবফ সদস্যগণ ছোট ছোট গ্রুপে আড্ডার মাধ্যমে পিঠা, ফুচকা ও অন্যান্য মজাদার খাবার খেতে খেতে বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের স্মৃতিচারণ করেন। ক্যাম্পাসের স্থাপনার আদলে নিমির্ত দুটি ফটো বুথে ছবি তুলতে গিয়ে অনেকেই যেন ছাত্রজীবনে হারিয়ে যান।


মূল আয়োজন শুরু হয় সন্ধ্যা ৫:৩০ এ। বাংলাদেশ পুলিশ নাট্যদল মঞ্চস্থ করে তাদের প্রযোজিত নাটক “অভিশপ্ত আগস্ট”। নাটকটি কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটের মূল মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হলে উপস্থিত হাজার খানেক জুবফ সদস্য ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট কাক ডাকা ভোরে ৩২ নম্বরে বিশ্ব ইতিহাসের ঘৃণ্যতম হত্যাকাণ্ডের ঘটনাবলী ও তার পটভূমি অবলোকন করেন।
নাট্য পরিবেশনার পর ১৫ মিনিটের বিরতি দিয়ে আলোচনাসভা শুরু হয়। পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠের মাধ্যমে সভা শুরু হয়। স্বাগত বক্তব্যে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে জুবফ গঠনের ইতিহাস, তাৎপর্য ও লক্ষ্য তুলে ধরি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনীদের দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের দাবি জানাই এবং বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দেশ পরিচালনায় ফোরামের প্রতিটি সদস্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পাশে থাকব এই আশাবাদ ব্যক্ত করি।


আলোচনাসভায় অংশগ্রহণের জন্য আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন, এমপি, হুইপ, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ, কথা থাকলেও জরুরি প্রয়োজনের দেশের বাইরে থাকায় আসতে না পারলেও জাবির এই সাবেক শিক্ষার্থী তাঁর লিখিত বক্তব্য মেইল করে পাঠালে তাঁর পক্ষে সেটি পাঠ করা হয়। তিনি জুবফ সদস্যদের দেশের জন্য ৯৯% না, ১০০% উজাড় করে সেবা দেয়ার উদাত্ত আহবান জানান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম, এমপি, আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান বঙ্গবন্ধু স্মরণে এই মহতী অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য। জাবির সাবেক শিক্ষার্থী হিসেবে তিনি তাঁর ক্যাম্পাস জীবনের স্মৃতিচারণ করেন ও বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান প্রধান অতিথির বক্তব্যে জুবফের সফলতা কামনা করেন। তিনি জুবফ সদস্যদের নিঃস্বার্থভাবে দেশমাতৃকার সেবা অব্যাহত রাখার আহবান জানান ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও চেতনা ধারণ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশ সেবায় নিয়োজিত থাকার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।


সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জুবফ সভাপতি মনোয়ার আহমেদ, সাবেক সচিব, বাংলাদেশ সরকার, জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন প্রস্তুতি উপ-কমিটির আহবায়ক মোঃ তাহিয়াত হোসেন, সহ-সভাপতি, জুবফ, ড. খন্দকার মাহিদ উদ্দিন, ডিআইজি, খুলনা রেঞ্জ ও সহ-সভাপতি, জুবফ, এবং মোঃ বজলুল কবির ভুঁইয়া, কর কমিশনার ও কোষাধ্যক্ষ, জুবফ।


আলোচনাসভা শেষে নৈশভোজ ও র‍্যাফেল ড্র আয়োজনের মাধ্যমে জুবফের অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয় রাত ১১.৩০ ঘটিকায়।
অনুষ্ঠান সুন্দরভাবে শেষ করতে পারায় ফোরামের সভাপতি  সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের  ডিসি আব্দুল আহাদ পিপিএম-বার। 

০ মন্তব্য

আরও পোস্ট পড়ুন

মতামত দিন