বিজিবি খুলনা সেক্টর সদর দপ্তরের উদ্যোগে মাদকদ্রব্য ধ্বংসকরণ

দ্বারা zime
০ মন্তব্য 61 দর্শন

 

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) খুলনা সেক্টর সদর দপ্তরের উদ্যোগে মালিকবিহীন আটককৃত বিভিন্ন রকম মাদকদ্রব্য ধ্বংসকরণ আজ (রবিবার) দুপুরে খুলনা বিজিবি প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র বলেন, মাদকদ্রব্য পাচার সংক্রান্ত অপরাধ প্রতিরোধ করা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের অন্যতম দায়িত্ব ও কর্তব্য। এদেশের বিশাল সীমান্ত দিয়ে মাদকদ্রব্য চোরাচালান প্রতিরোধ করা এই বাহিনীর জন্য একটি চ্যালেঞ্জ। এ বিষয়টিকে আমাদের পেশাগত দায়িত্ব ছাড়াও সামাজিক দায়িত্ব মনে করতে হবে। কেননা মাদকাশক্তির সাথে অপরাধ প্রবণতার সরাসরি সম্পৃক্ততা রয়েছে। বিশেষ করে মাদকাশক্তির করাল গ্রাসে আমাদের তরুণ যুবসমাজ আজ ধ্বংসের সস্মুখীন। তিনি আরও বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা আজ আমাদের সামাজিক ও নৈতিক দায়িত্ব। মাদকসেবনের ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে গণসচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত বাংলাদেশ গড়া বর্তমান সরকারের একটি অন্যতম অঙ্গীকার। সরকারের এই অঙ্গীকার বাস্তবায়নে বিজিবি অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন যশোর বিজিবি’র সদর দপ্তরের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম আহমেদ এবং খুলনা বিজিবি’র সদর দপ্তরের সেক্টর কমান্ডার কর্নেল মামুনূর রশীদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন খুলনা ব্যাটালিয়ন ২১ বিজিবি’র লে. কর্নেল মোহাম্মদ তানভীর রহমান। এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) পুলক কুমার মৈত্র, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) তাপস কুমার পাল, কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট এর রাজস্ব কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাসহ প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ধ্বংসকৃত মাদকদ্রব্যের মধ্যে ছিলো ৫৬২৩৮ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল, ৪৩২২ বোতল বাংলা মদ, ১২৬ বোতল বিভিন্ন রকম মদ, ৩১১ বোতল ভারতীয় স্কার্প সিরাপ, ৪৭.৫৩০ কেজি ভারতীয় গাঁজা, ২৩৬৯০ পিস ভারতীয় ইয়াবা ট্যাবলেট, ৩০৩৮ পিস বিভিন্ন রকম যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট এবং ৫৬৪৯ প্যাকেট ভারতীয় পাতার বিড়ি।

 



০ মন্তব্য

আরও পোস্ট পড়ুন

মতামত দিন