বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর বুকে উন্নয়নের রোল মডেল : খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি মঈনুল হক

দ্বারা zime
০ মন্তব্য 443 দর্শন

 

যশোর জেলা পুলিশের আয়োজনে পুলিশ লাইন্সে বিশেষ কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ খ্রিঃ সকাল ১১.৩০ ঘটিকায় যশোর জেলা পুলিশের আয়োজনে পুলিশ লাইন ড্রিল সেটে বিশেষ কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা  রেঞ্জের ডিআইজি  মঈনুল হক, বিপিএম(বার), পিপিএম।উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন যশোর জেলার  পুলিশ সুপার  প্রলয় কুমার জোয়ারদার, বিপিএম (বার), পিপিএম।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত ও গীতা পাঠ করা হয়।

এরপর উপস্থিত সকল পদমর্যাদার পুলিশ সদস্যদের জন্য মুক্ত আলোচনার ব্যবস্থা করা হয়। এসময় তারা নিজেদের ও সম্মিলিত সমস্যার কথা  রেঞ্জ ডিআইজি র  কাছে তুলে ধরেন।

পরবর্তীতে  রেঞ্জ ডিআইজি মঈনুল হক তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই উপস্থিত সকল পুলিশ সদস্যদের খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি কার্যালয়ের পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান।একই সাথে তিনি স্মরণ করেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মদানকারী সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ এবং সকল ভাষা শহীদদের।

তিনি বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর বুকে উন্নয়নের রোল মডেল। তিনি আরো বলেন, যশোর জেলা হল বাংলাদেশের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ জেলার মধ্যে অন্যতম সীমান্তবর্তী একটি জেলা। আমার সৌভাগ্য হয়েছিল এই জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে কাজ করার।তিনি বলেন যুগের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ পুলিশ আজ অনেক উন্নত ও শক্তিশালী বাহিনীতে পরিণত হয়েছে।তিনি সহকর্মীদের সাথে ভাল আচরণ করার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন আমরা যেখানে যেভাবেই থাকি না কেন আমাদের সব সময় মাথায় রাখতে হবে আমি একজন বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর গর্বিত সদস্য।

সুতরাং ডিসিপিলিনের প্রতি আমাদের অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। তিনি বলেন, আমি সবসময় চেষ্টা করি আমার অধীনস্ত সকল সহকর্মীদের সর্বোচ্চ ওয়েলফেয়ার দিতে কিন্তু আমি ডিসিপ্লিন এর ব্যাপারে বিন্দুমাত্র ছাড় দিব না কাউকে। তিনি ব্যক্তিগত নিরাপত্তার কথা স্মরণ করিয়ে বলেন, আমাদের সকলকে অবশ্যই ব্যক্তিগত নিরাপত্তা সংক্রান্তে আরো বেশি সচেতন হতে হবে।

মনে রাখবেন আপনি ক্ষতিগ্রস্ত মানে আপনার বাহিনী ক্ষতিগ্রস্ত, আপনার বাহিনী ক্ষতিগ্রস্ত মানে আপনার রাষ্ট্র ক্ষতিগ্রস্ত। তিনি আরো বলেন, আমরা সকলে মিলে একটা পরিবার, আমাদের সকলকে অবশ্যই একে অপরের সুযোগ-সুবিধা গুলো দেখতে হবে।তিনি বলেন, আপনারা অত্যন্ত সৌভাগ্যবান যে এমন একজন স্মার্ট পুলিশ সুপারের অধীনে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন।

রেঞ্জ ডিআইজি  বিট পুলিশের উপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, বিট পুলিশিং এর মাধ্যমে একেবারে প্রত্যন্ত এলাকায় পুলিশি সেবাটা পৌঁছে দেয়া যায় সুতরাং এই কাজটি সকলকে অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে করতে হবে।মনে রাখবেন বাংলাদেশের নিরাপত্তার জন্য আমাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যেতে হবে।তিনি আরো বলেন, আপনারাই হবেন আগামীর স্মার্ট বাংলাদেশের স্মার্ট পুলিশ।পরিশেষে তিনি সকলের সুস্বাস্থ্য কামনা করে তার বক্তব্য শেষ করেন।

অনুষ্ঠানের সমাপনী বক্তব্য রাখেন অত্র সভার  সভাপতি পুলিশ সুপার যশোর প্রলয় কুমার জোয়ারদার, বিপিএম (বার), পিপিএম। পুলিশ সুপার তার বক্তব্য শুরুতেই মাননীয় রেঞ্জ ডিআইজি র  যশোর জেলায় আগমনে বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।তিনি সকল পুলিশ সদস্যের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা যেন নির্যাতন-নিপীড়নের হাতিয়ার না হই । থানা হবে সেবার প্রাণকেন্দ্র। তিনি বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে যশোর জেলা পুলিশের প্রতিটি সদস্য শূণ্য সহিষ্ণু নীতিতে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, আমি যেমন সহকর্মীর ওয়েলফেয়ারের ব্যাপারে উদার ঠিক তেমনি ডিসিপ্লিন এর ব্যাপারে ততটাই কঠিন।পরিশেষে তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে আগামীতে বাংলাদেশ পুলিশের প্রতিটি সদস্য স্মার্ট পুলিশ হিসেবে গড়ে উঠবে এটাই আমাদের আশা।

অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনা করেন মোঃ বেলাল হোসাইন, পিপিএম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ক্রাইম অ্যান্ড অপস্), যশোর।এর আগে  রেঞ্জ ডিআইজি  কে যশোর জেলায় আগমন উপলক্ষে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে জেলা পুলিশের পক্ষ হতে ফুলেল শুভেচ্ছা ও গার্ড অফ অনার প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন  রেশমা শারমিন, পিপিএম, পুলিশ সুপার পিবিআই যশোর,  মোহাম্মদ মহিউদ্দিন আহমেদ, বিশেষ পুলিশ সুপার, সিআইডি যশোর,  মোঃ সাইফুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( প্রশাসন ও অর্থ), যশোর, হাইওয়ে পুলিশ যশোর, সিআইডি, পিবিআই সহ জেলা পুলিশের সকল পদ মর্যাদার পুলিশ সদস্যবৃন্দ।





০ মন্তব্য

আরও পোস্ট পড়ুন

মতামত দিন